হাতীবান্ধায় নবম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ: ৭ মাস পর মামলা, ধর্ষক গ্রেপ্তার

নবম শ্রেণির ছাত্রছাত্রী ধর্ষণ: ৭ মাস পর মামলা, ধর্ষক গ্রেপ্তার

মোস্তাফিজু ররহমান (মোস্তফা) লালমনিহাট প্রতিনিধি.জেলার হাতীবান্ধা উপজেলায় ৯ম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত শফিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।
গত ৭ মার্চ ওই স্কুল ছাত্রীকে অপরহণের পর ধর্ষণ করা হলেও ঘটনার ৭ মাস পর গত ৯ সেপ্টেম্বর রাতে ধর্ষণের অভিযোগে হাতীবান্ধা থানায় মামলা করে ধর্ষণের শিকার ওই স্কুল ছাত্রীর মা।
পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদের পুর্ব পাশে সিঙ্গিমারী গ্রামের ৯ নং ওয়ার্ডের ৯ম শ্রেণীর ভোকেশনাল শাখার এক ছাত্রীকে গত ৭ মার্চ ঘুন্টি এলাকা থেকে অপহরণ করে পার্শ্ববর্তী পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম এলাকার আব্দুল কুদ্দুসের পুত্র শফিকুল ইসলাম (৩৮)। পরে ওই স্কুল ছাত্রীকে রংপুরের অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণের পর সে দিনেই ওই স্কুল ছাত্রীকে বাড়িতে রেখে যান শফিকুল ইসলাম। ঘটনাটি ভয়ে বাবা-মাসহ পরিবারের কাউকে বলেনি ধর্ষণের শিকার ওই স্কুল ছাত্রী।
ঘটনার ৭ মাস পর বিষয়টি জানতে পেয়ে বিচার চেয়ে হাতীবান্ধা থানায় ধর্ষনের অভিযোগ এনে শফিকুলসহ দুই জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন মেয়ের মা। পরে এ ঘটনায় অভিযুক্ত শফিকুল ইসলামকে পাটগ্রাম উপজেলা চত্তর থেকে গ্রেপ্তার করে লালমনিরহাট জেল হাজতে প্রেরণ করেন হাতীবান্ধা থানা পুলিশ।
হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় শফিকুল নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Share.

Comments are closed.