লালমনিরহাটে আপত্তিকর অবস্থায় ইয়ারসহ যুবলীগ নেতা আটক

লালমনিরহাট প্রতিনিধি.
লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় আপত্তিকর অবস্থায় রাশেদুল ইসলাম রাসেল (৩০) ও তার সহযোগীকে আটক করেছে পুলিশ।আজ বুধবার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের কিসামত চন্দ্রপুর এলাকার ফয়সার আলীর বাড়ি থেকে তাদের আটক করা হয়।

রাসেদুল ইসলাম রাসেল ভাদাই ইউনিয়নের আরাজি দেওডোবা গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়ন যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক। অপরজন তার সহযোগী বাড়ির মালিক ফয়সার আলীর ছেলে আশরাফুল ইসলাম (২৮)।

পুলিশ ও স্থানীরা জানান, এক সন্তানের জনক যুবলীগ নেতা রাসেদুল ইসলাম রাসেল একই উপজেলার সারপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে (১৬) প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে শারীরিক সম্পর্ক গড়তে তার সহযোগী আশরাফুল ইসলামের বাড়িতে নিয়ে যান।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসাদুজ্জামান ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মাসুদ রানা ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় রাসেল ও ওই ছাত্রীকে আটক করেন। অসামাজিক কাজে সহযোগীতা করার অপরাধে বাড়ির মালিকের ছেলে আশরাফুল ইসলামকে আটক করে পুলিশ।

আটকের সময় রাসেদুল ইসলাম রাসেল নিজেকে যুবলীগ নেতা হিসেবে পরিচয় দেন। তবে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আজিজুল ইসলাম চানু সাংবাদিককে বলেন, আটক রাসেল যুবলীগের কেউ নন।

আর এই ঘটনায় ওই স্কুল ছাত্রী বাদি হয়ে আদিতমারী থানায় আটক দুইজনসহ বাড়ির মালিক ফয়সার আলী সহ তিন জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেন।

আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মাসুদ রানা সাংবাদিককে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ইতিপুর্বেও এমন কাজে সহযোগীতা করার দায়ে ওই বাড়ির মালিক ফয়সার আলীকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছিল।

Share.

Comments are closed.