পাটগ্রামে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে বিয়ে করতে এসে ইউএনও’র হাতে ধরা পড়লেন বর

পাটগ্রামে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে বিয়ে করতে এসে ইউএনও’র হাতে ধরা পড়লেন বর
লালমনিরহাট প্র্রতিনিধি:

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় বাল্যবিয়ে করতে এসে বিয়ের আসরেই ইউএনওর হাতে ধরা খেলেন বর শাকিল ইসলাম (২০)। সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীকে বাল্যবিয়ে করার অপরাধে তাকে তিন মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

শুক্রবার রাতে উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের ৬৫ খেংটিবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। দন্ডপ্রাপ্ত বর শাকিল ইসলাম উপজেলার জগতবেড় ইউনিয়নের পশ্চিম জগতবেড় গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে।

পাটগ্রামের ইউএনও ও ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক আব্দুল করিম জানান, শুক্রবার রাতে বরযাত্রী নিয়ে শাকিল যায় একই উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের ৬৫ খেংটিবাড়ি গ্রামের এক বাড়িতে সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীকে বিয়ে করতে এসেছে বর।এমন খবরে ওই বাড়িতে গেলে আমন্ত্রিত অতিথিসহ বরযাত্রী ও কনের বাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়। তবে সেখান থেকে বর শাকিলকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্তকর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) সুমন কুমার মহন্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,শনিবার সকালে দন্ডপ্রাপ্তকে কারাগারে পাঠানো হবে।

Share.

Comments are closed.