দিনাজপুরে বজ্রপাতে লহ্মীমন্দিরে আশ্রয় নেওয়া ২ পুরুষ ও ১ নারীর মৃত্যু

দিনাজপুরে বজ্রপাতে লহ্মীমন্দিরে আশ্রয় নেওয়া ২ পুরুষ ও ১ নারীর মৃত্যু

দিনাজপুর প্রতিনিধি.

দিনাজপুরের বিরল ও বোচাগঞ্জে বজ্রপাতে এক নারীসহ ৩ জন নিহত ও একজন আহত হয়েছে। বিরল উপজেলার ৯নং মঙ্গলপুর ইউপি’র উত্তর মাধবপুর গ্রামের লক্ষ্মিরহাট বাজারে ও বোচাগঞ্জ উপজেলার ১নং নাফানগর গোদাপুকুর গ্রামে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় বৃষ্টির সময় বজ্রপাতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বিরল উপজেলার হরিশচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত কংশ চন্দ্র শীলের ছেলে সুমন্ত চন্দ্র শীল (৪৫) ও নছু গ্রামের জীবিত চন্দ্র রায়ের ছেলে শার্নিক চন্দ্র রায় (৪০) ও বোচাগঞ্জ উপজেলার গোধাপুকুর গ্রামের সাইফুল ইসলামের স্ত্রী মাহামুদা বেগম (৪০)। এ সময় আহত হয় রঞ্জিত নামে এক ব্যক্তি ঝলসে গেছে।
মঙ্গলপুর ইউপি চেয়ারম্যান সেরাজুল ইসলাম জানান, রাত সাড়ে ৮টায় বৃষ্টির সময় লক্ষ্মি মন্দিরের বারান্দায় আশ্রয় নেয় সুমন্ত চন্দ্র শীল, শার্নিক চন্দ্র রায় ও রঞ্জিত। এ সময় হঠাৎ বজ্রপাত ঘটলে তারা তিনজনই ঝলসে যায়। ঘটনাস্থলে সুমন্ত চন্দ্র শীল, শার্নিক চন্দ্র রায় মারা যায়।

পরে আহত রঞ্জিতকে উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত লাশ ঘটনাস্থলেই ছিল।

বিরল থানার ওসি গোলাম রসুল দুই জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। অপরদিকে বোচাগঞ্জ উপজেলার গোধাপুকুর গ্রামের সাইফুল ইসলামের স্ত্রী মাহমুদা বেগম (৪০) বাড়ির সামনে দোকানে ভাজা-পোড়া বিক্রি করছিল। এ সময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি।

বোচাগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রউফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Share.

Comments are closed.