গাইবান্ধায় স্কুলরে রুটিনে ওসিসহ উর্দ্ধতন পুলিশ কর্মকর্তাদের মোবাইল নম্বর, ওয়েবসাইট, ফেসবুক ও ইমেইল ঠিকানা

জেলা প্রতিনিধি গাইবান্ধা :
জঙ্গি কার্যক্রম রোধ, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টির জন্য শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে গাইবান্ধার সাত থানার ওসিসহ উর্দ্ধতন পুলিশ কর্মকর্তাদের মোবাইল নম্বর, ওয়েবসাইট, ফেসবুক ও ইমেইল ঠিকানা এবং উপদেশমূলক কথা সম্বলিত ক্যালেন্ডার ও ক্লাশ রুটিন দেওয়া হচ্ছে।

বুধবার সকালে গাইবান্ধা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সাত উপজেলার মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এই ক্যালেন্ডার ও ক্লাশ রুটিন বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ।

এতে লেখা রয়েছে, পুলিশ সু-নাগরিকের বন্ধু, পুলিশকে সহযোগিতা করবো। পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ। বাল্যবিবাহকে আমি ঘৃনা করি। এ ছাড়া নির্দেশনামূলক লেখা রয়েছে, ট্রাফিক আইন মেনে ডানে বামে দেখে রাস্তা পার হবো। জঙ্গিবাদকে না বলি। পৃথিবীকে সবুজ রাখি, সবুজে বাঁচি। নছিমন-করিমনে চড়ে স্কুলে যাবো না। মাদক ও জুয়াকে ঘৃনা করবো। যৌতুক নেয়া ভিক্ষাবৃত্তির সমান। যারা ইভটিজিং করে তারা নিকৃষ্ট পশু সমতুল্য। অপরিচিত লোকের দেয়া কোন খাবার খাব না।

এসব ক্যালেন্ডার ও ক্লাশ রুটিনে আরও লেখা রয়েছে, বাংলাদেশ পুলিশের ওয়েবসাইট, গাইবান্ধা পুলিশের ফেসবুক পেইজ ও ইমেইল ঠিকানা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সহকারি পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মো. আসাদুজ্জামান, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মো. শাহরিয়ার, প্রধান শিক্ষক মিসেস সাহানা বানু, সহকারি শিক্ষক মনিন্দ্রনাথ সরকার, ওয়াজেদুর রহমান, আবু সায়েম সরকার, রেজাউল করিম, মো. সাফুন মিয়া, মো. মাইদুল ইসলাম, মতিয়ার রহমান ও কাসফিয়া বেগম প্রমুখ।

এসব বিষয়ে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ জাগো নিউজকে বলেন, জঙ্গি তৎপরতা প্রতিরোধ ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের পাশাপাশি দেশের প্রতিটি মানুষ সচেতন হলেই এব্যাপারে সার্বিক সাফল্য অর্জিত হবে। ক্যালেন্ডার ও ক্লাশ রুটিন বিতরণের এই কার্যক্রম খুবই ভালো কাজ দেবে।

Share.

Comments are closed.