কালীগঞ্জ ও পাটগ্রামে জেএমবির ৩ সদস্য আটক

লালমনিরহাট প্রতিনিধি.
আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) জেলা সমন্বয়কসহ জামাআতুল মুজাহেদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) দুই সক্রিয় সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-১৩।

শুক্রবার সন্ধ্যায় লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ ও পাটগ্রাম থানা এলাকায় পৃথক দুটি অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। এ সময় অস্ত্র ও গুলিসহ বিপুল পরিমাণ জঙ্গিবাদী বই উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

রোববার দুপুর ১২টার দিকে রংপুর নগরীর পানি উন্নয়ন বোর্ডের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক।

তিনি জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রাবের একটি দল অভিযান চালিয়ে লালমনিরহাট জেলার প্রধান সমন্বয়ক ও দাওয়াতে আমির মেহেদী সাদ্দাম হোসেন সবুজকে (২২) কালীগঞ্জের ভোটমারী এলাকার নিজ বাড়ি থেকে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, দুই রাউন্ড পিস্তলের গুলি ও বিপুল পরিমাণ জঙ্গিবাদী বই এবং লিফলেট উদ্ধার করেছে র্যাব। সবুজ ওই এলাকার মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে।

এছাড়া অপর এক অভিযানে পাটগ্রাম থানাধীন রসুলগঞ্জ (কলেজ রোড) এলাকার একটি স’মিলে অভিযান চালিয়ে জেএমবির সক্রিয় সদস্য পাটগ্রাম থানার শমসেরপুর গ্রামের জমিনুর ইসলামের ছেলে রুহুল আমিনকে (২২) এবং পাটগ্রাম-দহগ্রাম সড়কের কোর্টতলী এলাকার সেলুনের দোকান থেকে শমসেরপুর ললিতারহাট গ্রামের ছলেমান আলীর ছেলে জেএমবির সক্রিয় সদস্য খোকনকে (২১) আটক করা হয়।

এ সময় রুহুল আমিনের কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, এক রাউন্ড পিস্তলের গুলি, বিপুল পরিমাণ জঙ্গিবাদী বই ও লিফলেট এবং খোকনের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ জঙ্গিবাদী বই ও লিফলেট উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই তিন সদস্যের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়ক আরও জানান, আটকরা প্রায় এক বছর ধরে গোপনে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি নাশকতার পরিকল্পনা করে আসছিলেন। তাদের দেয়া তথ্যমতে বৃহত্তর রংপুর অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল তাদের।

Share.

Comments are closed.